বাংলাদেশের ‘আসল’ বিশ্বকাপ শুরু আজ

স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে হেরে শুরু। পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে রানের ব্যবধানে সবচেয়ে বড় জয়ে প্রথম পর্ব শেষ।

হারের পর ক্রিকেটারদের নিয়ে বিসিবির সমালোচনা, সাংবাদিকদের সংবাদ সম্মেলন বয়কট, সতীর্থদের মাঠে উল্লাস করতে মাহমুদউল্লাহর বাধা, এরপর সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়কের আবেগের বিস্ফোরণ।

সুখ-দুঃখের রঙে রাঙানো টি ২০ বিশ্বকাপের প্রথম পর্ব শেষ করা বাংলাদেশের সামনে পাহাড়সম চ্যালেঞ্জ।

সুপার টুয়েলভে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই প্রতিপক্ষ প্রথম রাউন্ড থেকে আসা শ্রীলংকা। আইসিসির আসরে সব সময় তারা নিজেদের তুলে ধরে বেশ ভালোভাবে।

বাংলাদেশ পরের রাউন্ডে নিজেদের সেভাবে মেলে ধরতে পারে না। এবার কী ভাগ্য বদল হবে?

শারজায় আজ বিকাল ৪টায় লংকানদের হারানোর মিশনে নামবে বাংলাদেশ।

টুর্নামেন্টের মাঝপথে আইসিসির সিদ্ধান্ত বদলের কারণে বদলে গেছে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ।

সুপার টুয়েলভে নিজেদের প্রথম প্রতিপক্ষের নাম যখন জানলেন মাহমুদউল্লাহরা, তখন ম্যাচ শুরু হতে বাকি ৪৮ ঘণ্টারও কম।

আইসিসির ‘খামখেয়ালিপনায়’ জলাঞ্জলি দিতে হচ্ছে এতদিনের হোমওয়ার্ক।

ভারত, পাকিস্তান, আফগানিস্তান, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে লড়াইয়ের ছক এখন অর্থহীন।

শ্রীলংকাকে দিয়ে শুরু অভিযানে বাংলাদেশ কত দ্রুত মানিয়ে নিতে পারবে, সেটাই দেখার। ওমান থেকে আরব আমিরাতের দুবাইয়ে আসার পর অনুশীলনের সুযোগ পাওয়া গেছে মাত্র একদিন।

তবে এরআগে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচে সংযুক্ত আরব আমিরাতের কন্ডিশনে নিজেদের মানিয়ে নিয়েছে বাংলাদেশ।

প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো শ্রীলংকাকে ভালোভাবেই চেনেন। সেই চেনা থেকেই তাদের হারানোর ছক কষেছেন কোচ। তিনি বলেন, ‘কয়েকমাস আগে আমরা শ্রীলংকার বিপক্ষে খেলেছি।

টেস্ট ও ওয়ানডেতে তাদের বিপক্ষে ভালো লড়াই করেছি। আমাদের স্কিলফুল বোলার ও কিছু ভালো ব্যাটসম্যান নিয়ে ভারসাম্যপূর্ণ দল। বিশ্বমানের অলরাউন্ডার সাকিব আছে। কন্ডিশনও আমাদের পক্ষে।

শারজার উইকেট অনেকটা ঢাকার মতো। আশা করি, আগামীকালের (আজ) ম্যাচে এগুলো আমাদের সহায়তা করবে।’

বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে বাংলাদেশের রেকর্ড হতাশার। এবার আসরে অতীতের রেকর্ড থেকে বেরিয়ে আসার পারফরম্যান্স আশা করেছেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ।

প্রথম রাউন্ডের নিস্তরঙ্গ নদী পার হতে গিয়ে ডুবতে বসেছিল বাংলাদেশ। খারাপ সময়টা যদি প্রথম রাউন্ডে পড়ে থাকে, তাতেই স্বস্তি। এমনটি মনে করছেন ক্রিকেটাররা।

খুদে ফরম্যাটে নির্দিষ্ট দিনে ভালো খেলে যেকোনো দল চমক দেখাতে পারে। ফেভারিট না হলেও চমকের সম্ভাবনা উঁকি দিচ্ছে মাহমুদউল্লাহদের ঘিরে।

তবে সুপার টুয়েলভের চ্যালেঞ্জ যে ঢের বেশি হবে, সবারই তা জানা। বাংলাদেশ দলের চিন্তা টপঅর্ডার নিয়ে। ওপেনিংয়ে বড় জুটি হচ্ছে না। মুশফিকুর রহিম চেনা ছন্দে নেই।

সাকিব ও মাহমুদউল্লাহ আত্মবিশ্বাস জোগাচ্ছেন। বোলিং ইউনিট গুছিয়ে নিয়েছেন সাকিব-মোস্তাফিজরা।

আগের ম্যাচে পাকিস্তানের শহিদ আফ্রিদির সঙ্গে ভাগ বসানো সাকিবের আজ সুযোগ আছে সবাইকে ছাড়িয়ে এককভাবে শীর্ষে ওঠার।

ঢাকায় ২০১৪ টি ২০ বিশ্বকাপের ট্রফি উঠেছিল শ্রীলংকার হাতে। ঢাকার কন্ডিশনের সঙ্গে সংযুক্ত আরব আমিরাতের মিল রয়েছে।

প্রথম রাউন্ডে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স দেখিয়েছে তারা। তবে সুপার টুয়েলভে নিজেদের প্রথম ম্যাচের আগে তারা বড় ধাক্কা খেয়েছে রহস্যময় স্পিনার মাহিশ থিকশানাকে হারিয়ে।

বাংলাদেশের জন্য এই সংবাদ এক অর্থে সুখবর। চোটে ভুগছেন থিকশানা। সুপার টুয়েলভে বাংলাদেশের বিপক্ষে তাকে পাচ্ছে না লংকানরা।

লংকান ব্যাটার ভানুকা রাজাপাকসে বলেন, ‘থিকশানাকে নিয়ে কোনো ঝুঁকি নিতে চাই না।’ ওমানে প্রথম পর্বের শেষ ম্যাচে জিতে সংযুক্ত আরব আমিরাতে এসেছে শ্রীলংকা।

তারা সাকিব ও মোস্তাফিজকে নিয়ে আলাদা পরিকল্পনা সাজিয়েছে। ম্যাচ-পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে দাশুন শানাকা বলেন, ‘পেস বোলারদের চেয়ে স্পিনাররা বাড়তি সুবিধা পেতে পারে।

আইপিএলের ম্যাচগুলোতে এই ভেন্যু ব্যবহার করা হয়েছে। ভালো পরিকল্পনাই সাজিয়েছি আমরা। বিশেষভাবে ফিজ এবং সাকিবকে নিয়ে।

অন্য স্পিনারদের কথাও ভুলে গেলে চলবে না। আমাদের ভালো পরিকল্পনা আছে। আশা করছি আগামীকাল (আজ) ভালো একটি ম্যাচ হবে।

আপনার জন্য নির্বাচিত খবর

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here

আরও পড়ুন

যুক্ত হউন

1,000FansLike
1,000FollowersFollow
100,000SubscribersSubscribe

সর্বশেষ খবর