মঙ্গলবার, মে ১৭, ২০২২

ফেসবুক নিয়ে বোমা ফাটালেন সাবেক কর্মী

বিশ্বব্যাপী বহুল ব্যবহৃত সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুককে নিয়ে তোলপাড় ফেলে দিয়েছে তথ্য ফাঁসকারী ফ্রান্সেস হাউগেন।

সম্প্রতি জনসমক্ষে এলেন ৩৭ বছর বয়সি সাবেক এ ফেসবুককর্মী।

তিনি বলেন, ফাঁস হওয়া নথিপত্রে প্রমাণ মেলে, ফেসবুক বারবার গ্রাহকদের নিরাপত্তার পরিবর্তে নিজেদের ব্যবসায়িক স্বার্থকে গুরুত্ব দিয়েছে।

ফেসবুকের ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ড আর মেনে নিতে না পেরে চলতি বছরেই প্রতিষ্ঠানটি ছেড়ে দিয়েছেন বলে এক সাক্ষাৎকারে জানান তিনি।

তবে, চাকরি ছাড়ার আগে কপি করে নিয়েছিলেন ফেসবুকের বেশকিছু অভ্যন্তরীণ নথিপত্র। ওই নথিগুলোর ওপর ভিত্তি করেই একের পর এক প্রতিবেদন প্রকাশ করা শুরু করে ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল।

সেখানে সেবাগ্রহিতাদের প্রতি ফেসবুকের আন্তরিকতার অভাব, নীতিমালার ব্যত্যয়, প্রতিশ্রুতি আর বাস্তবিক কর্মকাণ্ডের অসামঞ্জস্যসহ বিভিন্ন বিষয় উঠে এসেছে।

এ নিয়ে কঠোর সমালোচনার মুখে পড়েছে বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী হিসাবে পরিচিত সামাজিক মাধ্যমটি।

‘প্রোটেক্টিং কিডস অনলাইন’ শিরোনামে এক সিনেট অধিবেশনে কিশোর বয়সিদের মানসিক স্বাস্থ্যের ওপর ইনস্টাগ্রামের নেতিবাচক প্রভাব নিয়ে ফেসবুকের গবেষণা প্রসঙ্গে সাক্ষ্য দেওয়ার কথা রয়েছে হাউগেনের।

সাক্ষাৎকারে ফ্রান্সেস হাউগেন বলেন, ‘জনসাধারণের ও ফেসবুকের জন্য যেটা ভালো, তার মধ্যে বিশাল পার্থক্য আছে।

ফেসবুক বারবার নিজের স্বার্থ রক্ষার চেষ্টা করে, যেমন মুনাফার পরিমাণ আরও বাড়ানো।’ জানুয়ারি মাসের ক্যাপিটল হিল দাঙ্গায় ফেসবুকের ভূমিকা নিয়েও সাক্ষাৎকারে বলেছেন হাউগেন।

ওই ঘটনায় ফেসবুকের ভূমিকা সহিংসতার আগুনে ঘি ঢেলেছিল বলে মন্তব্য করেন তিনি।

তবে এক সাক্ষাৎকারে ফেসবুকের ভাইস প্রেসিডেন্ট অব গ্লোবাল অ্যাফেয়ার্স নিক ক্লেগ দাবি করেন, সহিংস দাঙ্গার জন্য ফেসবুককে দায়ী করা হাস্যকর।

‘মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক মেরুকরণের প্রযুক্তিগত ব্যাখ্যা আছে ভেবে কিছু মানুষ মিথ্যা স্বস্তি পান বলে মনে হয় আমার’- বলেন ক্লেগ।

সেলেব্রিটি ও রাজনীতিবিদরা ফেসবুকের কাছ থেকে যে আলাদা সুবিধা পায় সেই বিষয়টি উঠে এসেছে হাউগেনের ফাঁস করা নথি থেকে।

সবচেয়ে চমকপ্রদ যে তথ্য উঠে এসেছে, তার মধ্যে একটি হলো, নিজস্ব শেয়ার মালিকদের মামলার ঝুঁকিতে আছে ফেসবুক।

ক্রেমব্রিজ অ্যানালিটিকা কেলেঙ্কারিতে প্রতিষ্ঠানটিকে পাঁচশ কোটি ডলার জরিমানা করেছিল যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল ট্রেড কমিশন (এফটিসি)।

ওই শেয়ার মালিকরা বলছেন, ফেসবুক প্রধান মার্ক জাকারবার্গকে একক দায় নেওয়া থেকে রক্ষা করতে গিয়েই এত বড় অঙ্কের জরিমানা গুনতে হচ্ছে প্রতিষ্ঠানকে।

আপনার জন্য নির্বাচিত খবর

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here

আরও পড়ুন

যুক্ত হউন

1,000FansLike
1,000FollowersFollow
100,000SubscribersSubscribe

সর্বশেষ খবর