মেয়োনেজের আটটি অজানা ব্যবহার দেখে নিন

Avatar
স্টাফ রিপোর্টার
৩:২৬ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১, ২০২০

বিভিন্ন ধরণের ফাস্টফুড খাওয়ার সময় সসের চেয়েও যে জিনিসটি বেশি প্রয়োজনীয় তা হচ্ছে মেয়োনেজ। মেয়োনেজ খাবারের স্বাদ দ্বিগুণ বাড়িয়ে দেয়।

এ খাবারটি ছাড়া অনেকেরই ফাস্টফুডই খান না। কিন্তু শুধুমাত্র খাবারের স্বাদ বাড়ানোই মেয়োনেজের কাজ নয়। মেয়োনেজ দিয়ে আরো অনেক কাজ করা সম্ভব।

আসুন দেখে নেই

১. কাঠের আসবাব থেকে দাগ তুলতে–কাঠের আসবাবে পানির দাগ বা অন্যান্য দাগ পড়লে এতে মেয়োনেজ লাগিয়ে রাখুন ৫-১০ মিনিট। এরপর ভেজা কাপড় দিয়ে আলতো ঘষে তুলে নিন। দাগ দূর হয়ে যাবে।

২. ত্বক স্ক্রাব করতে —মেয়োনেজ ত্বকের স্ক্রাবার হিসেবে বেশ ভালো কাজ করে। মুখ, হাতের কনুই এবং হাঁটুতে মেয়োনেজ একটু ঘষে লাগিয়ে রেখে দিন ১০-১৫ মিনিট। এরপর একটি ভেজা তোয়ালে দিয়ে মুখে ফেলুন। এটি ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধির পাশাপাশি ময়েশ্চারাইজার হিসেবেও কাজ করবে।

৩. নখের ভঙ্গুরতা দূর করতে–যারা নখ ভাঙ্গার মতো বিরক্তিকর সমস্যায় ভোগেন তারা নিয়মিত মেয়োনেজ দিয়ে নখ মাসাজ করুন। নখ ভাঙ্গার যন্ত্রণা একেবারে দূর হবে।

৪. জিনিসপত্র থেকে স্টিকার উঠাতে–জিনিসপত্রে প্রাইজট্যাগ বা অন্যান্য স্টিকার লাগানো থাকলে তা তুলে ফেলা অনেক কঠিন। এ সমস্যাও দূর করবে মেয়োনেজ। স্টিকারের ওপরে মেয়োনেজ লাগিয়ে রাখুন এক ঘণ্টা। এরপর স্টিকার উঠিয়ে ফেলুন। স্টিকারের অল্প অংশ লেগে থাকে এবং আঠালো হয়ে থাকলে আবারো সামান্য মেয়োনেজ লাগিয়ে মুছে ফেলুন। পুরোপুরি দূর হবে স্টিকার।

৫. চুল থেকে উকুনের ডিম তাড়াতে–চুল থেকে উকুন সরে গেলেও উকুনের ডিম(লিক) চুলের সাথে শক্ত করে লেগে থাকে যা দূর করা যায় না একেবারেই। ঘরে মেয়োনেজ থাকলে পুরো চুলে তা লাগিয়ে নিন ভালো করে। ৩০ মিনিট পর চুল ধুয়ে ফেলুন। চিকন দাঁতের চিরুনি দিয়ে আঁচড়ে এ যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পাবেন।

৬. রুক্ষ অনুজ্জ্বল চুলকে কোমল ও উজ্জ্বল করতে–চুলের রুক্ষতা দূর করতে মেয়োনেজের জুড়ি নেই। শ্যাম্পু করার আগে পুরো চুলে মেয়োনেজ মেখে রেখে দিন ৩০ মিনিট। এরপর ভালো করে শ্যাম্পু করে ফেলুন। চুল হবে কোমল ও উজ্জ্বল।

৭. রোদে পোড়ার জ্বলন থেকে মুক্তি পেতে–অনেক বেশি রোদে পুড়ে গেলে ত্বকে লালচে দাগের পাশাপাশি জ্বলনও হয়। এর থেকে মুক্তি পেতে ত্বকে লাগিয়ে রাখুন মেয়োনেজ। এতে ত্বকের জ্বলন কমবে এবং তার সাথে লালচে ভাবও কমে যাবে।

৮. দেয়াল থেকে রঙ পেন্সিলের রঙ ওঠাতে–বাসায় বাচ্চা থাকলে তারা দুষ্টুমি করে দেয়ালে রং পেন্সিল দিয়ে আঁকা-আকি করতেই পারে। এ দাগ ওঠাতেও মেয়োনেজের জুড়ি নেই। একটুখানি মেয়োনেজ নিয়ে দেয়ালে ঘষুন। পাঁচ থেকে দশ মিনিট লাগিয়ে রেখে ভেজা কাপড় দিয়ে মুছে নিন। সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

মন্তব্য লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here