নতুন বছরে ঘুরতে যাওয়ার সেরা স্থান

Avatar
স্টাফ রিপোর্টার
৪:৪০ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১, ২০২০

পুরোনো সবকিছু ফেলে সামনে এগিয়ে যাওয়ার সময় এসেছে। আরও একটি বছর শেষ হয়েছে, এমন সময়ে নতুনকে বরণ করে নিতে বিশ্বের আকর্ষণীয় স্থানগুলোতে ঘোরাঘুরির চেয়ে ভালো কিছু আর কি হতে পারে?

সে কারণেই বিশ্বের অন্যতম কিছু আকর্ষণীয় স্থান সম্পর্কে জানতে এই আয়োজন। ভ্রমণপিপাসুরা এখনই ঠিক করে ফেলতে পারেন এ বছর কোথায় কোথায় ঘুরতে যাবেন।

বন, জার্মানি
কিংবদন্তি সুরকার এবং পিয়ানো বাদক লুডউইগ ভ্যান বেথোভেনের ২৫০তম জন্মবার্ষিকী পালিত হবে ২০২০ সালে। তিনি জার্মানির সুন্দর শহর বনে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। এ শহরটি জার্মানির পশ্চিমাঞ্চলীয় রাইন নদীর তীরে অবস্থিত। গত ১৬ ডিসেম্বর থেকে ২০২০ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত এ শহরে অনেকগুলো বড় অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। ছবির মতো সুন্দর এ শহরের এসব আয়োজন উপভোগ করতে সেখানে ঘুরতে যেতে পারেন আপনিও।

ওলিন্ডা, ব্রাজিল
চলতি বছর যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া এবং জাপানের পর্যটকদের জন্য ভিসা সহজ করেছে ব্রাজিল। দেশটির জনপ্রিয় পর্যটন স্থানগুলোর মধ্যে অন্যতম রিও ডি জেনেইরো, সালভাদোর অথবা সাও পাওলো। তবে খুব বেশি মানুষের কাছে পরিচিত না হলেও ওলিন্ডায় একবার ঢুঁ মারতে পারেন। ছোট্ট, সুন্দর এই ঔপনিবেশিক শহর আপনাকে হতাশ করবে না। রাস্তার সারি সারি গাছ, ঔপনিবেশিক সময়কার গির্জা আর প্রাণবন্ত রঙ-বেরঙের বাড়ি-ঘর এবং শহরের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ও সতেজ বায়ু আপনাকে মুগ্ধ করবে।

গ্রিনল্যান্ড
গ্রিনল্যান্ডের প্রতি স্বয়ং মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পেরও আগ্রহ রয়েছে। তিনি পুরো দ্বীপটিই কিনতে চেয়েছিলেন।চলতি বছর তার এমন ঘোষণার পর থেকেই গ্রিনল্যান্ড ছিল মানুষের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে। দেশটিতে পর্যটকের সংখ্যাও বাড়তে শুরু করে। গ্রিনল্যান্ডে ঘুরতে যাওয়া পর্যটকদের জন্য বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা রেখেছে কর্তৃপক্ষ।

টোকিও, জাপান
আগামী বছর সামার অলিম্পিক ২০২০’র প্রস্তুতি নিচ্ছে টোকিও। এ সময়ই জাপানের রাজধানীতে ভ্রমণের জন্য উপযুক্ত সময়। অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠার শুরু হবে আগামী ২৪ জুলাই। ২০২০ সালের ৯ আগস্ট সামার অলিম্পিক শেষ হবে।

কোস্টারিকা
কেন্দ্রীয় আমেরিকার অন্যান্য দেশের তুলনায় কোস্টারিকা তুলনামূলক ব্যয়বহুল। তবে কিছুটা মিতব্যয়ী হয়ে চললে সেখানে ভ্রমণ করাটাও তেমন কঠিন কিছু নয়। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরা কোস্টারিকায় গেলে সবকিছুর কথা ভুলে যাবেন আপনি।

লাইবেরিয়া
বেশির ভাগ মানুষই লাইবেরিয়া সম্পর্কে বেশিকিছু জানেন না। এটা অবশ্যই একটি লজ্জার বিষয়। কারণ পশ্চিম আফ্রিকার এ দেশটি সিয়েরা লিওন, গিনিয়া এবং কোট ডি আভরির সীমান্তে অবস্থিত। মনোরম সৈকত, প্রাকৃতিক সৌন্দর্যসহ দেশটিতে পর্যটকদের জন্য অনেক ধরনের সুযোগ-সুবিধা রয়েছে। আফ্রিকার সর্ববৃহৎ রেইন ফরেস্ট স্যাপো ন্যাশনাল পার্ক এখানেই অবস্থিত।

ভুটান
সবুজেঘেরা সুন্দর শহর ভুটান। অপেক্ষাকৃত কম খরচে ভুটান ভ্রমণপিপাসু মানুষদের কাছে অন্যতম স্থান। ভুটানে দেখার মতো বেশকিছু স্থান রয়েছে। বিশেষ করে এর টাইগার্স নেস্ট মঠ বেশ আকর্ষণীয়।

দেসাউ, জার্মানি
অনেক পর্যটকের পছন্দের তালিকায় রয়েছে জার্মানি। ২০২০ সালে আপনারও যদি জার্মানিতে যাওয়ার পরিকল্পনা থাকে তবে বেরলিনে না গিয়ে বরং রাজধানী থেকে মাত্র দেড় ঘণ্টা পথ পাড়ি দিয়ে যেতে পারেন দেসাউ শহরে। এ শহরটি এর বিভিন্ন স্থাপত্যের জন্য জনপ্রিয়। বিশেষ করে বাইহস ভবন, ইমপ্লয়মেন্ট অফিস এবং স্টিল হাউস ঘুরে দেখতে পারেন।

সালবার্গ, অস্ট্রিয়া
জার্মানির সীমান্তের কাছে অবস্থিত অস্ট্রিয়ার সালবার্গ শহর। ২০২০ সালে এ শহরের জনপ্রিয় সালবার্গ ফেস্টিভালের শততম বার্ষিকী। তার মানে এ যাবৎকালের মধ্যে আগামী বছরই সবচেয়ে বড় এবং ভালোভাবে এ উৎসব পালিত হবে। বিভিন্ন প্রদর্শনী, কনসার্ট, নাটক, সভা-সম্মেলনসহ অনেক কিছুর আয়োজন করা হবে।

মিসর
মিসর যেন সব সময়ই এক রহস্য। সারাবিশ্বের পর্যটকদের কাছেই অন্যতম জনপ্রিয় স্থান এই পিরামিডের দেশ। যে কোনো সময়ই ভ্রমণের জন্য ভালো। মিসরের মতো এখনও কোনো দেশ একটি নিখুঁত পিরামিড তৈরি করতে পারেনি। কেউ কেউ এগুলোকে প্রাচীন রাজাদের সমাধিস্থল মনে করেন। এসব পিরামিডকে ঘিরে থাকা রহস্য এখনও ভেদ করা সম্ভব হয়নি।

অহরিদ, মেসিডোনিয়া
দক্ষিণপূর্ব ইউরোপে ভ্রমণের কথা চিন্তা করলে অনেকেরই হয়তো উত্তর মেসিডোনিয়ার কথা মনে হবে না। তবে ২০২০ সালে এ ধারণার পরিবর্তন হওয়া দরকার। গ্রিস এবং আলবেসনিয়ার মধ্যে অবস্থিত উত্তর মেসিডোনিয়ায় এক হাজার ১০০ জলাশয় রয়েছে। এর মধ্যে ইউনেস্কো ঘোষিত ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইট লেক অহরিদ অন্যতম।

পর্তুগাল
টানা তিন বছর বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় গন্তব্য হিসেবে পর্তুগালের নাম ঘোষণা করেছে ওয়ার্ল্ড ট্রাভেল অ্যাওয়ার্ডস। এটা খুব সহজেই বলা যায় যে, দক্ষিণ-পশ্চিম ইউরোপের এই দেশটি এখন আর লুকানো রত্ন নয়। পতুর্গাল এখন ভ্রমণপিপাসুদের কাছে একটি অন্যতম নাম। সেখানকার খাবার এবং ওয়াইন বিশ্বমানের ও তুলনামূলক সাশ্রয়ী। এখানকার আবহাওয়াও বেশ ভালো।

ইসরায়েল
গত কয়েক বছরে ইসরায়েলে পর্যটন শিল্পের প্রসার ঘটেছে। সেখানে বহু বিলাসবহুল হোটেল তাদের কার্যক্রম শুরু করেছে এবং আরও অনেক হোটেলের নির্মাণকাজ চলছে। পর্যটকদের জন্য হোটেল, রেস্টুরেন্ট, হাইকিংসহ আরও অনেক সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছে ইসরায়েল।

ভারত
পর্যটকদের ঘুরতের যাওয়ার জন্য ভারত একটি অন্যতম স্থান। দেশটির বিভিন্ন রাজ্যের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ও ঐতিহ্য আপনাকে মুগ্ধ করবে। কম খরচে এক সঙ্গে অনেক স্থানে ভ্রমণের অভিজ্ঞতা অর্জন করতে চাইলে যেতে পারেন ভারত।

বিশেষ করে সেখানকার আগরার তাজমহল, জম্মু-কাশ্মীর, রাজস্থান, সিকিমসহ বিভিন্ন স্থানের নানা রকম বৈচিত্র্য একঘেয়ে জীবনে নতুনত্ব এনে দেবে।

বুরিরাম, থাইল্যান্ড
পর্যটকদের কাছে ঘোরাঘুরির জন্য থাইল্যান্ড সব সময়ই প্রথম সারিতে রয়েছে। যদিও ব্যাংককে প্রতি বছর প্রচুর পর্যটক ঘুরতে যান। সে তুলনায় বুরিরাম থাইল্যান্ডের একটি প্রত্যন্ত অঞ্চল। তবে এর ফেনম রুং হিসটোরিকাল পার্কসহ বেশকিছু স্থান পর্যটকদের আকর্ষণ করে।

মন্তব্য লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here