৬০০০ বছরের প্রেম, ‘লাভার্স অফ ভালদারো’কে দেখে বিস্মিত বিশ্ব

Avatar
স্টাফ রিপোর্টার
২:৫৭ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৯

প্রায় ৬০০০ বছর ধরে মাটির তলায় ঘুমিয়ে রয়েছেন দুজনে। নিশ্চিন্তে নির্লিপ্তে। বিশ্বজুড়ে প্রতিনিয়ত ঘটে চলা সমস্ত ঘটনাকে একপ্রকার নস্যাৎ করে দিয়েই মাটির সঙ্গে মিশে রয়েছেন তাঁরা। এতদিনেও একটু বদলায়নি তাঁদের অবস্থান। রোমিও – জুলিয়েট, হীর- রঞ্জার প্রেমের উপাখ্যানের সঙ্গে এঁরাও তৈরি করে নিয়েছে তাঁদের নিজের পরিচিতি।

এঁরা কেউ জীবিত নন। রক্ত – মাংস মিশে গিয়েছে মাটির সঙ্গে। পড়ে রয়েছে হাড়। কালের নিয়মে তাও জরাজীর্ণ।’লাভার্স অফ ভালদারো’। এই নামেই লোকে চেনেন তাঁদের। এদের সঙ্গে জরিয়ে রয়েছে ৬০০০ বছরের ইতিহাস। উওর ইতালির মাঁতুয়া গ্রামে খননকার্য চালানোর সময় মাটির তলা থেকে এই দুটি কঙ্কালকে উদ্ধার করেন প্রত্নতাত্ত্বিকেরা।

সমস্তকিছু পরীক্ষা- নিরীক্ষা করার পর প্রত্নতাত্ত্বিকেরা জানিয়েছেন, ওই কঙ্কালদু’টি ৫০০০-৪০০০ খ্রিষ্টপূর্বাব্দের। প্রায় ৬০০০ বছরের পুরনো এই কঙ্কালদু’টি। তাঁরা জানিয়েছেন, এইভাবেই হয়ত তাঁদের দু’জনকে কবর দেওয়া হয়েছিল। কিংবা তাঁরা এভাবেই মাটির তলায় চাপা পড়ে মারা গিয়েছিলেন।

প্রত্নতাত্ত্বিকদের তরফে জানানো হয়েছে, মৃত্যুর সময় ওই যুবক – যুবতীর বয়স ছিলো ১৮ থেকে ২০ বছরের মধ্যে। উচ্চতা ছিল ৫ফুট ২ইঞ্চির কাছাকাছি। মৃত্যুর পরেও এদের দু’জনকে কউ আলাদা করতে পারেনি।

লোকে বলে সত্যিকারের ভালবাসার কোনওদিনের মৃত্যু হয় না। আর ছ’হাজার বছরের সেই ভালবাসা আরও একবার সেই কথাই প্রমাণ করল। বর্তমানে তাঁদের নতুন ঠিকানা ইতালির মাঁতুয়ার ন্যাশনাল আর্কিওলজিকাল মিউজিয়ামে।

মন্তব্য লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here