সালমান-জেসিয়ার যৌন ভিডিও নিয়ে অভিযোগ দায়ের, দাবি- ‘ভুয়া’

গত ক’দিন ধরে অনলাইনে ব্যাপক সমালোচনার ঝড় তুলেছে ইউটিউবার সালমান মুক্তাদির ও ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ খ্যাত উঠতি মডেল জেসিয়া ইসলামের একটি কথিত যৌন ভিডিও। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, টুইটারে চলছে তুমুল নিন্দার ঝড়। দু’জনের মধ্যকার সম্পর্কের খবরটা সবাই জানে। কিন্তু তাদের মধ্যকার গোপণীয় মুহুর্তের কীর্তি-কলাপ কেন অনলাইনে আসবে- নেটিজেনদের প্রতিক্রিয়ার বিষয় এটাই।

তবে এই ভিডিওর সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। খোদ জেসিয়াও একে ‘ভুয়া’ বলে দাবি করছেন। আর ভুয়া ভিডিও বানিয়ে ফেসবুকে ছড়িয়ে সামাজিকভাবে তাকে হেয় প্রতিপন্ন করা হচ্ছে- দাবি করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন মডেল জেসিয়া। আজ মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর মিন্টু রোডের ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইউনিটে অভিযোগ করেছেন বলে জানিয়েছেন জেসিয়া।

সাইবার অপরাধ বিভাগের অতিরিক্ত উপকমিশনার নাজমুল ইসলাম অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বিষয়টি আমরা খতিয়ে দেখছি। শিগগিরই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অভিযোগের কারণ হিসেবে জেসিয়া বলেন, ‘কয়েকদিন ধরে আমাকে নিয়ে কিছু ভুয়া ভিডিও বানিয়ে সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার মানসে একটি কুচক্রি মহল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ও ইন্টারনেটে ভুয়া কন্টেন্ট ছড়াচ্ছে। মূলত এদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় নিয়ে আসার জন্য অভিযোগ দায়ের করলাম।’

প্রেমিক ইউটিউবার সালমান মুক্তাদিরের কল্যাণে সপ্তাহখানেক ধরে ফেসবুকে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছেন জেসিয়া। দু’জনের বেশকিছু ঘনিষ্ট মুহুর্তের অন্তরঙ্গ ছবি ও ভিডিওচিত্র ঘুরছে ফেসবুকজুড়ে। এ নিয়ে অনেকের বিরূপ মন্তব্যের শিকার হয়েছেন তারা।

জেসিয়ার আশা, তাকে ঘিরে ভুয়া ভিডিওগুলো ইন্টারনেট থেকে মুছে ফেলা হবে এবং সেই সঙ্গে দোষীদের উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা নেবে পুলিশ।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ নির্বাচিত হয়ে চীনে অনুষ্ঠিত ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ প্রতিযোগিতার মূল আসরে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেন জেসিয়া। সেরা ৪০ থেকে ফিরে অভিনয়ে নিজের জায়গা পোক্ত করতে লড়াই করে যাচ্ছেন।

ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave A Reply

Your email address will not be published.

shares