বৈশাখে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পাবে ৭টি ঘরোয়া ফেইস প্যাকে

নতুন বছরকে বরণ করার জন্য নতুন শাড়ি, চুড়ি, সব রেডি। আপনি তো রেডি কিন্তু আপনার ত্বকও কি রেডি? বৈশাখে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পাবে এমন কিছু প্রিপারেশন নিয়েছেন?

মানে বলছি যে, বৈশাখে এই যে এত ঘুরবেন, দাওয়াতও থাকতে পারে, সাথে থাকবে সারাদিনের গরম ও ক্লান্তি… এত ধকল একবারে সামলাতে আপনার প্রিয় ত্বকটাকে রেডি রাখতে হবে… এদিকে হাতে ক’টা মাত্র দিন বাকি! তাহলে উপায়? কিভাবে হবে বৈশাখের পূর্ববর্তী ত্বকের প্রস্তুতি? এই উপায় পাবেন আজকের এই ফিচার থেকে। ত্বক উজ্জ্বল করার সহজ কিছু উপায় জানবেন আজ। আর এই উপায়গুলো আপনার ঘরে থাকা উপাদান দিয়েই তৈরি করা সম্ভব। তাই যেকোনো সময় তৈরি করে নিতে পারবেন এই প্যাকগুলো।

আসুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক বৈশাখে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে ৭টি ঘরোয়া ফেইস প্যাক নিয়ে।

বেসন, লেবুর রস এবং টকদই
বেসন খুব পরিচিত একটি উপাদান। আর লেবু প্রায় সবার ঘরেই থাকে। একটি পাত্রে পরিমাণমত বেসন, এক চা চামচ লেবুর রস এবং এক চা চামচ টকদই মিশিয়ে নিন। খুব ভালো করে মিক্স করুন যাতে কোনো দানা না থাকে। এই প্যাকটি ত্বকে ব্যবহার করুন। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এটি ত্বকের ময়লা, ধুলোবালি দূর করে ত্বক ভিতর থেকে পরিষ্কার করে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে। আর টকদই ত্বকের ময়েশ্চার ধরে রাখে।

কলা, মধুর ফেইস প্যাক
অর্ধেকটা পাকা কলা, আধা চা চামচ মধু, এক চা চামচ টকদই এবং কয়েক ফোঁটা গোলাপজল একসাথে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এই মিশ্রণটি ত্বকে ব্যবহার করুন। প্যাকটি ত্বকে ১৫ মিনিটে রাখুন। ১৫ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এটি সাথে সাথে ত্বকে একটা উজ্জ্বল ভাব নিয়ে আসে। কলা আর মধুতে আছে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট যা ত্বকের ড্যামেজ হয়ে যাওয়া কোষ মেরামত করতে সাহায্য করে। আর ১৫ মিনিটের মধ্যে ত্বকে নিয়ে আসে উজ্জ্বল ভাব। আপনি চাইলে এটি সপ্তাহে দুইবার ব্যবহার করতে পারেন।

পহেলা বৈশাখে শাড়ি পরা, ৪টি স্টাইলে ফ্যাশনে আনুন নতুনত্ব (ভিডিও সহ)

পেঁপের প্যাক
পাকা পেঁপে স্বাস্থ্যের জন্য অনেক উপকারী। শুধু স্বাস্থ্যের জন্য নয় পাকা পেঁপে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতেও বেশ কার্যকর। ১/৪ কাপ পাকা পেঁপে, ১/২ চা চামচ চন্দনের গুঁড়ো, ১/২ চা চামচ অ্যালোভেরা জেল এবং কয়েক ফোঁটা গোলাপজল একটি পাত্রে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এই প্যাকটি ত্বকে ব্যবহার করুন। ৩০ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

টমেটো এবং চিনি
প্রাকৃতিক স্ক্রাবার হিসাবে টমেটোর জুড়ি নেই। একটি ছোট টমেটো কুচি করে কেটে ম্যাশ করে নিন। এই মিশ্রণের সাথে এক টেবিল চামচ চিনি মেশান। টমেটো আর চিনির মিশ্রণটি মুখ এবং ঘাড়ে লাগিয়ে নিন। ১০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এরপর ভেজা আঙ্গুল দিয়ে মুখ এবং ঘাড় ম্যাসাজ করুন। তবে খেয়াল রাখবেন ত্বকের ম্যাসাজ যেন মুখের নিচ থেকে শুরু করে উপর দিকে উঠে। ১০ মিনিট পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি সপ্তাহে দুইবার ব্যবহার করতে পারবেন।

বেসন এবং দুধের প্যাক
ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতে বেসন বেশ কার্যকর। দুই টেবিল চামচ বেসন, এক টেবিল চামচ দুধের সর বা গোলাপজল, কয়েক ফোঁটা লেবুর রস এবং এক চিমিটি হলুদের গুঁড়ো একটি পাত্রে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি ত্বকে ব্যবহার করুন। প্যাকটি ত্বকে কয়েকটি লেয়ারে ব্যবহার করুন। এটি ত্বকে ১৫-২০ মিনিট রাখুন। শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

ডিমের প্যাক
ডিম শুধু স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী তা কিন্তু নয়, এটি আপনার বৈশাখে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতেও সাহায্য করবে। একটি ডিমের সাদা অংশ, এক টেবিল চামচ বেসন এবং কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। প্যাকটি তৈরির আগে ডিমের সাদা অংশটি ভালোভাবে বিট করে নিন। এই প্যাকটি ত্বকে ১০-১৫ মিনিট রাখুন। এরপর প্যাকটি শুকিয়ে গেলে কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটির সাথে এক চা চামচ মধু ব্যবহার করতে পারেন।

গোলাপের পাপড়ি এবং দুধের প্যাক
গোলাপের পাপড়ি প্রাকৃতিকভাবে ত্বকে গোলাপীভাব নিয়ে আসে। দুই টেবিল চামচ চন্দনের গুঁড়ো, দুই টেবিল চামচ দুধ এবং কয়েকটি গোলাপের পাপড়ি দিয়ে তৈরি করে নিতে পারেন প্যাকটি। চন্দনের গুঁড়ো, গোলাপের পাপড়ি এবং দুধ একসাথে ব্লেন্ড করে পেস্ট করুন। এই পেস্টটি ত্বকে ১৫-২০ মিনিট রাখুন। তারপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। গোলাপের পাপড়ি দ্রুত ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করবে আর দুধ ত্বকের ময়েশ্চার ধরে রাখবে। আপনি এই প্যাকটি সপ্তাহে দুইদিন ব্যবহার করতে পারেন।

ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave A Reply

Your email address will not be published.

shares