প্রচ্ছদ 

বিশ্বজুড়ে পতিতা ও পতিতাবৃত্তির আদ্যোপ্রান্ত!

পতিতা,বেশ্যা,গণিকা শব্দটি শুনলেই শরীর ঘিনঘিন করে।সমাজের এধরনের কারো সাথে পরিচিত হলে সাধারণত আমরা লোক দেখানো ঘৃনার চোখে দেখি।হয়ত লোকচক্ষুর অন্তরালে আমরাই তাদের খরিদ্দার।বড় আশ্চর্য,বড় কষ্টের। তাদেরকে সমাজে মেনে নেওয়া একটি মারাত্মক অপরাধ বলে মনে করে ক্যানসারে আক্রান্ত সমাজের বিচার বিভাগের সমাজপতিরাও।কেও ভাবে না একটু সহযোগীতা,সাহস,ভালবাসা,পৃষ্ঠপোষকতা পেলে তারাও সুন্দর সমাজের বাসিন্দা হয়ে বাচতে পারে। অর্থের বিনিময়ে যৌনতা বিক্রির ইতিহাস সুপ্রাচীন। ওয়েবস্টার অভিধান মতে, সুমেরিয়ানদের মধ্যেই প্রথম পবিত্র পতিতার দেখা মেলে। প্রাচীন গ্রন্থাদিসূত্রে, যেমন ইতিহাসের জনক হিসেবে খ্যাত হিরোডেটাস (খ্রিষ্টপূর্ব ৪৮৪-খ্রিষ্টপূর্ব) এর লেখায় এই পবিত্র পতিতাবৃত্তির বহু নমুনা পাওয়া যায়। যেটি প্রথম…

Read More
প্রচ্ছদ 

সম্পর্কগুলো বদলে দেয় সময়!

আমার চোখে দেখা সবচেয়ে সুখী পরিবারটিও একদিন এলোমেলো হয়ে গেছে! ঋণের বোঝা সইতে না পেরে পরিবারের কর্তা লোক লজ্জার ভয়ে পালিয়ে বেড়ায়….! সবচেয়ে সুখী দম্পতিকে দেখিছি কিছু দিন পর আলাদা হয়ে তারা আলাদা আলাদা সংসার করছে! রোজ হাসি গানে মুখর থাকতো এমন একটি পরিবারকে দেখেছি তারা আর কখনো হাসে না! চোখের সামনে একটি যৌথ পরিবারের দাদা দাদী বাবা মা ক্রমান্বয়ে মরে যাওয়ার পর দেখেছি ওখানে স্বামী স্ত্রী আর এক সন্তানসহ একটি একক পরিবার অবশিষ্ট আছে! সময়গুলো অসময় হয়ে যায়…..! হঠাৎ যেনো এক মুঠো রোদ মেঘ হয়ে যায়! এক মুঠো সুখ…

Read More
প্রচ্ছদ 

পবিত্র মুহররমুল হারাম মাসের ১০ তারিখ পবিত্র আশূরা শরীফ দিনের আমলসমূহ-

এক নজরে: (১) ২টি রোযা রাখা, (২) পরিবারবর্গকে ভাল খাওয়ানো, (৩) ইফতার করা, (৪) গরীবদের পানাহার করানো ও ইয়াতীমের মাথায় হাত বুলানো, (৫) গোসল করা, (৬) চোখে (ইছমিদ) সুরমা দেয়া। বিস্তারিত: পবিত্র আশূরা শরীফ উপলক্ষে রোযা: عَنْ حَضَرَتْ اَبِـىْ هُرَيْرَةَ رَضِىَ اللهُ تَعَالىٰ عَنْهُ قَالَ قَالَ رَسُوْلُ اللهِ صَلّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ اَفْضَلُ الصِّيَامِ بَعْدَ رَمَضَانَ شَهْرُ اللهِ الْمُحَرَّمُ. অর্থ : “হযরত আবূ হুরায়রা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার থেকে বর্ণিত। নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, পবিত্র রমাদ্বান শরীফ উনার ফরয রোযার পর…

Read More
প্রচ্ছদ 

চাঁদের মতো ফুটফুটে এই শিশুটির বয়স ৪৮ ঘন্টার চেয়েও কম।

রক্তাক্ত এই শিশুটিকে দেখে নিশ্চয় মনে হচ্ছে যে, ইরাক-সিরিয়ার কোন হতভাগ্য শিশু হবে; যার ছোট্ট প্রাণটি বোমার ছিটা কেড়ে নিয়েছে – তাইনা? মোটেও কিন্তু তা নয়, শিশুটি হল রাতের অন্ধকারে কোন ছাপড়ার নিচে অবৈধভাবে মিলিত হওয়া দু’জন মানব-মানবীর ক্ষণিক-স্বাদের থেকেযাওয়া এক উপেক্ষিত চিহ্ন। প্রত্যাখ্যাত রাজসাক্ষী। চাঁদের মতো ফুটফুটে এই শিশুটির বয়স ৪৮ ঘন্টার চেয়েও কম। একটি ঝোঁপের মাঝে পরিত্যক্ত অবস্থায় পাওয়া গেছে। কচি দেহে অনেকাংশে আঘাতের চিহ্ন। ডান হাতটা রক্তাক্ত। নরোম তুলতুলে গালেও ছোপ ছোপ রক্তের দাগ। ঝোঁপের কীট-পতঙ্গ ও বিষাক্ত সাপের ছোবল এগুলো। মানবের উপেক্ষা আর সর্প-কীটের দংশন সত্বেও…

Read More