স্বামী স্ত্রী আর ডিম।

এক স্বামী প্রতিদিন তার স্ত্রী’র সাথে গায়ে পরে ঝগড়া করতেন।প্রায় সবসময় ই।খাবার টেবিল ও বাদ যেত না।তো স্বামী খেতে বসে ভাত আর ডিম খেতে চাইলো।স্ত্রী তাকে ভাত সাথে ডিম ভাজি খেতে দিলো।স্বামীজি বলে উঠলেন- ডিম ভাজি কেন করেছো?ডিম ভর্তা করে দিতে, সেটা বেশ হতো।
পরের দিন স্বামীজি আবার ও ভাত আর ডিম খেতে চাইলে এবার স্ত্রী তাকে ডিম ভর্তা করে দিলো।তখন স্বামী বললো- ডিম ভর্তা কেন করলে, ডিম এর অমলেট দিলে সেটা জোশ হতো।শুনে স্ত্রী’র মনটা খারাপ হয়ে গেল।
পরের দিন স্ত্রী ডিম এর অমলেট করে দিলো,তখন স্বামী বলে উঠলো- ডিম এর অমলেট কেন দিলে? ডিম রান্না করে দিলে ভালো হতো।
স্ত্রীর মন আবার ও খারাপ হয়ে গেলো।
কি আর করা ?
পরের দিন স্ত্রী ডিম ভাজি,ডিমের অমলেট,ডিমের ভর্তা,ডিম রান্না সহ ডিম দিয়ে যত প্রকার এর আইটেম তৈরি করা সম্ভব সব করলো, এই ভেবে যে, আজ স্বামী যে প্রকার এর ডিমের রান্নাই খেতে চাক না কেন তাকে তা দিয়ে তার মুখ বন্ধ করা যাবে।
যথারীতি স্বামী খেতে বসলো।স্ত্রী ডিম এর সব আইটেম সামনে এনে দিলো।স্বামী এবার বললো- না, সবই ঠিক ছিলো কিন্তু তুমি যে ডিমটা ভেজেছো সেই ডিমটা যদি ভর্তা করতে, আর যে ডিমটা ভর্তা করেছো সেই ডিমটা যদি রান্না করতে, আর যে ডিমটা রান্না করেছো সেই ডিম টা যদি অমলেট করতে,আর যে ডিমটা অমলেট করেছো সেই ডিমটা যদি ভাজতে তবে তা খেতে আরো বেশী ভালো হতো।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *