স্বপ্নে দেখা গুপ্তধনের খোঁজে সরকার

ভারতের কর্নাটকের তুমাকুরের বাসিন্দা ২৯ বছরের প্রদ্যুম্ন যাদব স্বপ্নে গুপ্তধনের দেখা পেয়েছিলেন। তারপরেই রাজ্য সরকারকে তিনি চিঠি লিখে আবেদন জানান সেই গুপ্তধন খুঁজে বের করার জন্য।

চিঠিতে তিনি লিখেছিলেন সাতশো বছর আগে কর্নাটকের শ্রী কিরিসোমেশ্বরা সাম্রাজ্যে ছিল। সেই সাম্রাজ্যের এক চতুর রাজা তাঁর প্রাসাদের ছ’‌টি ঘরে প্রচুর ধনসম্পদ লুকিয়ে রেখেছিলেন। সেই গুপ্তধন খুঁজে বের করে তা দিয়ে রাজ্যের উন্নয়ন করার আর্জি জানিয়েছেন তিনি।
প্রদ্যুম্নর এই চিঠি পাওয়ার পরেই নড়েচড়ে বসে মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তর। মুখ্যমন্ত্রীর অনুমতি নিয়েই এই গুপ্তধনের সন্ধান চালানোর জন্য প্রত্নতত্ত্ব বিভাগকে চিঠি লেখে কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তর। সেই চিঠি পাওয়ার পরেই প্রত্নতত্ত্ব বিভাগ জিওলজিকাল সার্ভে অব ইন্ডিয়াকে সেই গুপ্তধন খুঁজে বের করার নির্দেশ দিয়েছে বলে সূত্রের খবর।
যদিও এই ধরনের ঘটনা অই প্রথম নয়। এর আগে ২০১৩ সালে এক ব্যক্তির স্বাপ্নে দেখা গুপ্তধনের খোঁজে উনাওয়ের কেল্লায় খনন কাজ চালিয়েছিল। শোভন সরকার নামে এক সাধু দাবি করেছিল এখানে ১ হাজার টন সোনা মাটির নীচে চাপা পড়ে আশে।

তাঁর কথা শুনেই তৎকালীন ইউপিএ সরকার প্রত্নতত্ত্ব বিভাগকে খনন চালানোর নির্দেশ দেয়। কিন্তু খনন কাজ চালিয়ে উদ্ধার হয়েছিল কতগুলি পুরনো লোহার খেলনা, আর কাঁচের টুকরো।

সূত্র : আজকাল

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *