স্কুলের মধ্যে অজ্ঞান হয়ে হাসপাতালে গর্ভবতী ক্লাস টেনের ছাত্রী!

দিন দু’য়েক আগে স্কুল চলাকালিন ক্লাস টেনের এক ছাত্রী হঠাৎই অজ্ঞান হয়ে পড়ে। স্কুলের পক্ষ থেকে তার পরিবারকে খবর দেওয়ার পাশাপাশি তাকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

চিকিৎসকরা পরীক্ষা করে জানিয়ে দেন, ছাত্রীটি গর্ভবতী। এরপরই পোসকো আইনের আওতায় গ্রেফতার করা হয়েছে এক যুবককে। চেন্নাই শহরের এই ঘটনাটি এই মুহূর্তে রীতিমত সাড়া ফেলে দিয়েছে।

জানা গেছে, ছাত্রীটিকে স্থানীয় হাসপাতাল গর্ভবতী ঘোষণা করার পরই, তাকে গর্ভপাতের জন্য শনিবার একটি সরকারি হাসপাতালে নিয়ে যায় তার মা।

বিষয়টি অনৈতিক বলে হাসপাতালের তরফে জানানো হলেও, ছাত্রীর পরিবার তা মানতে নারাজ। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে চাপ দিতে শুরু করেন তাঁরা। বাধ্য হয়েই পুলিশে খবর দেওয়া হয় হাসপাতালের পক্ষ থেকে।

পুলিশ এসে ছাত্রী ও তার মাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে যায়। সেখানেই তারা স্বীকার করে সম্প্রতি এলাকার এক ঠিকা কর্মীর সঙ্গে পরিচয় ও বন্ধুত্ব হয়েছে ছাত্রীটির। তাদের মধ্যে ঘনিষ্ঠতাও বেড়েছে।

জেরার মুখে ছাত্রীটি স্বীকার করে নেয় তাকে জোর করেই শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত করে ওই যুবক। খবর জি নিউজের।

গোটা ঘটনাটি জানার পরই শনিবার বিকেলে গ্রেফতার করা হয়েছে অভিযুক্ত যুবককে। তার বিরুদ্ধে পোসকো আইনে মামলা রুজু করা হয়েছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Comments

comments

4 thoughts on “স্কুলের মধ্যে অজ্ঞান হয়ে হাসপাতালে গর্ভবতী ক্লাস টেনের ছাত্রী!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *