লাইফ-স্টাইল

সঠিক খাবার খাচ্ছেন তো? বুঝে নিন লক্ষণে

আমাদের ভালো থাকা বা মন্দ থাকার অনেকটাই নির্ভর করে খাদ্যাভ্যাসের ওপর। পেটের মেদ কমানো বা ওজন হ্রাসের প্রায় পুরোটাই নির্ভর করে খাবারের ওপর। তাই প্রত্যেকের নিজ নিজ দেহের বৈশিষ্ট্য বুঝে সুষম খাদ্য তালিকা তৈরি করে নেওয়া উচিত। তবে ব্যায়ামের সঙ্গে সঠিক খাদ্য তালিকা বেছে নিতে পারলে সবচেয়ে ভালো।

এখন কথা হলো, কীভাবে বুঝবেন যে আপনি সঠিক খাবারই খাচ্ছেন? অনেকভাবে বাছ-বিচার করে খেলেও দেখা যায় তা ঠিক হয়নি। এটা বুঝতেও যা ক্ষতি হওয়ার তা ঘটে যায়। তবে বিশেষজ্ঞদের মতে, খাদ্য তালিকা সঠিক আছে কিনা তা বোঝা যায় বেশ কিছু লক্ষণে। এখানে জেনে নিন এমনই লক্ষণগুলোর কথা। বুঝে ফেলবেন আপনার খাবার ঠিক আছে, কিংবা ভুল।

মেজাজ-মর্জি এলোমেলো থাকবে না
একবার আপনি প্রিয় জাঙ্ক ফুড আর আজেবাজে খাবার বন্ধ করে দেন, দেখবেন মন-মেজাজ কতটা বদলে গেছে। স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া শুরু করলে মনটাই ভালো থাকবে সব সময়। কাজেই দেহের জন্যে সঠিক খাবার খেলে আপনি বিষয়টি অনুভব করতে পারবেন। অস্বস্তিবোধ থাকবে না। মেজাজ অকারণে খিটখিটে হয়ে থাকবে না। যদি এমন থাকে তবে খাবারে পরিবর্তন আনতে হবে।

হালকাবোধ হয়
পেটপুরে খাওয়ার পর সাধারণত দেহটাকে অনেক ভারী লাগে। কিন্তু সঠিক খাবার যখন খাবেন তখন সকাল, দুপুর বা রাতের খাবারের পর একটুকুও অস্বস্তি লাগবে না। নিজেকে ভারী লাগবে না। আর যে খাবারটা খাবেন, তা খাওয়ার পর বরং ভালো লাগবে। হালকাবোধ হবে।

পেটের অবস্থা
এর আগে হয়তো প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ছুটতে হতো যেকোনো সময়। কিংবা টয়লেটে যাওয়ার কোনো বিশেষ সময়ের সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারেনি দেহ। আপনি সঠিক খাবার খেলে এ সমস্যা আর থাকবে না। পেটের কার্যক্রম সময় ধরে চলতে থাকবে। পুষ্টিকর ও সুষম খাবার হজমশক্তি বৃদ্ধি করে এবং পেটে কোনো সমস্যা রাখে না।

অফুরান প্রাণশক্তি
আগের চেয়ে অনেক বেশি বল পাবেন দেহে। কিন্তু খাবার সঠিক না হলে দুর্বল ভাব সহজে যেতে চায় না। সারাদিন অফিস বা অন্যান্য কাজ এবং আড্ডার পরও আপনি ঝরঝরে থাকবেন। পরবর্তী কোনো কাজের জন্যে একেবারে প্রস্তুত। এটাই সঠিক খাদ্য তালিকা মেনে চলার নমুনা।

ওজন কমে আসবে
সঠিক খাবার খেলে দেহের ওজন কমতে থাকে। যদি কাপড়গুলো ধীরে ধীরে আঁটোসাঁটো হতে থাকে তবে খাবার বদলাতে হবে। যদি সঠিক খাবার খেতে থাকেন, তবে আগের কাপড়ও দেহে ঠিকঠাকমতোই লাগবে। এগুলো সুষম খাবার খাওয়ার লক্ষণ।

জাঙ্ক ফুড আর ভালো লাগবে না
সঠিক খাবার খেতে থাকলে আর জাঙ্কফুড ভালো লাগবে না। যে জাঙ্কফুড না হলে চলতো না, তাকে বিদায় জানাতে পারবেন অনায়াসে। অর্থাৎ, আপনার দেহ আর অস্বাস্থ্যকর খাবার চাইবে না। এটা ভালো খাবার খাওয়ার লক্ষণ।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Comments

comments

One Reply to “সঠিক খাবার খাচ্ছেন তো? বুঝে নিন লক্ষণে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *