,

মিররলেস ক্যামেরা কেন কিনবেন ?

সম্প্রতি ক্যামেরার বাজারে আধিপত্য বিস্তার করতে শুরু করেছে মিররলেস ক্যামেরা। মিররলেস ক্যামেরার এতই জনপ্রিয়তা লাভ করেছে যে, চলচ্চিত্র নির্মাণেও এই ক্যামেরা ব্যবহৃত হচ্ছে।

যদিও পয়েন্ট অ্যান্ড শুট ক্যামেরা বহনে সুবিধা। কিন্তু তাতে ডিএসএলআর ক্যামেরার মতো ভালো রেজুলেশনের ছবি পাওয়া যায় না। অন্যদিকে ডিএসএলআর ক্যামেরায় প্রয়োজন হয় অনেকগুলো লেন্সের। এ ঝক্কি থেকে রেহাই মেলে সঙ্গে মিররলেস ক্যামেরা থাকলে।

বাজারে এখন মিলছে বিভিন্ন কোম্পানির নানা ব্র্যান্ডের মিররলেস ক্যামেরা। এর মধ্যে জনপ্রিয় ফুজিফিল্ম এক্স-টি২০, লেইকা ১৮১৯৭ ভি-লাক্স।  সনি আলফা ৬,৩০০, ৬,০০০। এই মডেলের ক্যামেরার দুই রকম সেট আছে। ‘এল’ এবং ‘ওয়াই’। ‘এল’ মডেলে একটাই লেন্স থাকবে ১৬-৫০ মিলিমিটার। আর ‘ওয়াই’ মডেলে ১৬-৫০ এবং ৫০-২১০ মিলিমিটারের দুই রকম লেন্সই থাকবে। এছাড়া রয়েছে ফুজিফিল্ম এক্স-এ১০, ক্যানন পাওয়ার শট জি৭এক্স, নিকন এ৯০০।

মিররলেস ক্যামেরা বাদ দিয়ে এই মুহূর্তে আরও যে ক্যামেরা বাজার মাতিয়েছে, তা হল ইনস্ট্যান্ট ক্যামেরা। ছবি তোলামাত্র প্রিন্ট বেরিয়ে আসবে। এর দাম খানিকটা বেশি। তবে খুব ভাল ছবি উঠবে, আশা করা বৃথা। ভাল আলোয় ছবি ভালই আসবে। অন্ধকারের কথা অন্ধকারেই থেকে যাওয়ার সুযোগ বেশি। ফুজিফিল্মের ‘ইনস্ট্যাক্স’ সিরিজের মডেলগুলো, এইচপি এসপি-রকেট ইনস্ট্যান্ট ক্যামেরা বেশ লোভনীয়। বাচ্চাদের ফটোগ্রাফিতে মজা পাওয়াতে এই ক্যামেরা অব্যর্থ গিফট।


     More News Of This Category