বাড়ির সাজসজ্জা হোক এই ভুলগুলো এড়িয়ে

বাড়ির সাজসজ্জা হোক এই ভুলগুলো এড়িয়ে

সবাই তার বাড়ি সাজাতে ভালোবাসেন। যেখানে সুন্দর যা জিনিস দেখেন, সঙ্গে সঙ্গে বাড়ি সাজানোর জন্য কিনে নেন। আপনি হয়তো জানেন না, আসল ভুলটা করেন এখানেই। বাড়ি সাজানোর ক্ষেত্রে কয়েকটি বিষয় অবশ্যই এড়িয়ে চলা উচিত। আপনার বাড়ির অবস্থান দেখেই আপনাকে আপনাকে ডিসিশন নিতে হবে, আপনাকে কি করতে হবে।

অন্যকে নকল করা

কোনো বন্ধুর বাড়ি গিয়ে তার বেডরুম বা ড্রয়িং রুমের সাজ আপনার বেশ মনে ধরল। আর নিজের বাড়িকেও ওই একইরকমভাবে সাজানোর পরিকল্পনা করতে শুরু করে দিলেন। অন্যকে নকল করবেন না। নিজের বাড়িকে সাজান নিজের মতো করে। আপনার ব্যক্তিত্ব যেন ফুটে ওঠে বাড়ির প্রতিটি কোনায়।

তাড়াহুড়ো করা

বাড়ি সাজাতে গিয়ে তাড়াহুড়ো করবেন না। বা সহজেই হয়ে যায় এমন কোনো উপায়ও খুঁজতে যাবেন না। মাথা ঠাণ্ডা করে আগে ভেবে নিন বাড়ির কোন অংশ কেমন করে সাজাতে চান। এই পরিকল্পনার জন্য সময় লাগবে। আর সবথেকে ভালো হয় যদি হাতে বানানো জিনিস দিয়ে ঘর সাজাতে পারেন। যেমন, পুরোনো কাচের জার বা রঙিন কাগজ দিয়ে বানিয়ে ফলেতে পারেন আধুনিক কায়দার আলো।

বাড়তি আসবাব জমিয়ে রাখা

অনেকেই পুরোনো আসবাব বাতিল না করে ঘরে জমিয়ে রাখেন। হয়তো বিশেষ কোনো কাজে লাগে না, তাও মায়ায় পরে তা বাতিল করতেও মন চায় না। যদি দেখেন ওই এক বা একাধিক বিশেষ আসবাবের কারণে জায়গার অভাব দেখা দিচ্ছে বা ঘিঞ্জি হয়ে উঠছে ঘর, তাহলে মায়া না বাড়িয়ে বাতিল করুন। এখন বাড়িতে বসেই অনলাইন কিছু সাইটে বিজ্ঞাপন দিয়ে বিক্রি করা সম্ভব যেকোনো আসবাব। জায়গাও বাড়বে, সেইসঙ্গে কিছু টাকাও হাতে আসবে।

অপর্যাপ্ত আলো

বাড়ি সাজানোর ক্ষেত্রে আলোর ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সঠিক আলোর ব্যবহার যেমন আপনার বাড়িকে করে তুলতে পারে স্বর্গের মতো সুন্দর, একইভাবে অপর্যাপ্ত আলোর কারণে নষ্ট হতে পারে বাড়ির সৌন্দর্য। প্রথমে খেয়াল রাখুন বাড়িতে সূর্যের আলো যেন সঠিকভাবে ঢুকতে পারে। এবার সূর্যাস্তের পর ঘর সাজাতে ব্যবহার করুন নানা কায়দার আলো। বাড়ির কোনো কোনায় যেন অন্ধকার না থাকে। সকলের নজর কাড়বে, এমন আলোয় বাড়ি সাজান।

অতিরিক্ত গুছিয়ে রাখা

বাড়ি অতিরিক্ত গুছিয়ে রাখলে, দেখতে নিখুঁত লাগলেও কেমন যেন কৃত্রিমতা চলে আসে। তারমধ্যে কোনও শিল্পের ছোঁয়া খুঁজে পাওয়া যায় না। একইরকমভাবে বাড়ি না সাজিয়ে প্রতিবার নতুন কিছু করুন এবং নিজস্ব স্টাইল স্টেটমেন্ট তৈরি করুন।

সূত্র: ইআই

Sharing is caring!

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *