জাতীয়

বন্যার্তদের ত্রাণ দিতে গিয়ে পুলিশের নির্যাতনের শিকার হাবিপ্রবি’র শিক্ষার্থীরা

হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের একটি দল বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ নিয়ে যাওয়ার সময় আর্মড পুলিশের কাছে বিনা দোষে নির্যাতিত হয়।

গত শুক্রবার আনুমানিক বিকাল ৫ ঘটিকায় চিরিরবন্দর থানার দল্লা বানিয়াখাড়ি ঢাকইল স্থানে বন্যাদুর্গতদের জন্য ত্রাণ নিয়ে যাওয়ার পথে পাঁচবাড়ি হাইওয়েতে বন্যার পানিতে ভেঙে যাওয়া এক লেনের করণে সেখানে কিছুক্ষণ অবস্থান করতে হয়েছিল বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষার্থীদের। সন্ধ্যা নেমে আসায় হাবিপ্রবির ত্রাণের গাড়িটি আগে ভাঙা অংশ পার করার জন্য কিছু ছাত্র নেমে রাস্তা ক্লিয়ার করতে যায়। এমতাবস্থায় দিনাজপুরের উদ্দেশ্যে একটি আর্মড পুলিশের গাড়ি (সাধারণ বাস) পথ অতিক্রম করার চেষ্টা করে। কিন্তু সামনে লোকাল বাস ও বিপরীত হাবিপ্রবির বন্যাদুর্গতদের ত্রাণের গাড়ি থাকায় অতিক্রম করতে পারছিল না।

গাড়িটিকে সাইড করতে বলা হলে ভিতর থেকে এক পুলিশ এসে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রকে থাপ্পড় মেরে বলেন, “আগে আমাদের গাড়ি যাবে তারপর অন্যান্য গাড়ি।” ছাত্রছাত্রীদের পক্ষ থেকে ত্রাণ দেয়ার কথা বলা হয়েও তেমন গুরুত্ব দেয় নি তারা। ইতোমধ্যে বাসের বাকি ছাত্ররা নেমে এসে থাপ্পড় মারার কারণ জানতে চাইলে কোন উত্তর না দিয়ে তাদের গাড়িটি সামনের দিকে নিতে বলেন। ছাত্ররা এতে বাধা দিলে প্রায় ৪০ থেকে ৫০ জন পুলিশ গাড়ি থেকে নেমে ছাত্রদের রাইফেল দিয়ে বেধড়ক মেরে প্রায় ৩০ ছাত্রকে আহত করেন। ছাত্ররা পিছিয়ে গেলে তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসের ভেতরে অবস্থানরত ছাত্রীদের উপর হামলা চালায়। স্থানীয় লোকজন এবং এক পুলিশ অফিসার এতে বাধা দিলে তারা শিবির বলে গ্রেফতার করার ভয় দেখায়।

এমন ঘটনার পরেও থেমে থাকেনি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণের পরেই আহতদের দিনাজপুর মেডিকেল কলেজে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়।

এই বর্বরতার প্রতিবাদের কাল থেকে বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে ব্যাপক ঝড় শুরু হয়েছে। খুব শিগগির বিভিন্ন প্রতিবাদ কর্মসূচি হাতে নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। সবাই বিষয়টি সুষ্ঠ বিচারের দাবি করে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Comments

comments

One Reply to “বন্যার্তদের ত্রাণ দিতে গিয়ে পুলিশের নির্যাতনের শিকার হাবিপ্রবি’র শিক্ষার্থীরা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *