নোবেল পুরস্কার এলো যেভাবে

সুইডিশ বিজ্ঞানী আলফ্রেড নোবেল ১৮৯৫ সালে একটি উইল করেন। নোবেল মৃত্যুর আগে উইলের মাধ্যমে এ পুরস্কার প্রদানের ঘোষণা করে যান।

১৯০১ সালে নোবেল পুরস্কার প্রবর্তিত হয়। ওই বছর থেকে পৃথিবীর বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে সফল এবং অনন্য সাধারণ গবেষণা, উদ্ভাবন ও মানব কল্যাণমূলক কর্মকাণ্ডের জন্য এ পুরস্কার প্রদান করা হচ্ছে। মোট ছয়টি বিষয়ে পুরস্কার প্রদান করা হয়।

বিষয়গুলো হল- পদার্থ, রসায়ন, চিকিৎসাশাস্ত্র, অর্থনীতি, সাহিত্য ও শান্তি। অর্থনীতিতে পুরস্কার প্রদান শুরু হয়েছে ১৯৬৯ সালে। নোবেল পুরস্কারকে এসব ক্ষেত্রে বিশ্বের সবচেয়ে সম্মানজনক পদক হিসেবে বিবেচনা করা হয়। নোবেল পুরস্কারপ্রাপ্তদের ইংরেজিতে নোবেল লরিয়েট বলা হয়।

ইতিহাস : আলফ্রেড নোবেল ১৮৩৩ সালের ২১ অক্টোবর সুইডেনের স্টকহোমে একটি প্রকৌশল পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একাধারে রসায়নবিদ, প্রকৌশলী ও একজন উদ্ভাবক ছিলেন। ১৮৯৪ সালে তিনি একটি লোহা ও ইস্পাত কারখানা ক্রয় করেন, যা পরবর্তী সময়ে একটি অন্যতম অস্ত্র তৈরির কারখানায় পরিণত করেন। তিনি ব্যালিস্টিক উদ্ভাবন করেন, যা বিশ্বব্যাপী ধোঁয়াহীন সামরিক বিস্ফোরক হিসেবে ব্যবহৃত হয়। তার ৩৫৫টি উদ্ভাবনের মাধ্যমে জীবদ্দশায় তিনি প্রচুর ধনসম্পদের মালিক হন যার মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য ছিল ডিনামাইট।

১৮৮৮ সালে তিনি তার ভাইয়ের পরিবর্তে নিজের মৃত্যু সংবাদ দেখে বিস্মত হন, যা একটি ফরাসি পত্রিকায় ‘এ মার্চেন্ট অব ডেথ হু ডেড’ নামে তা প্রকাশিত হয়। আসলে নোবেলের ভাই লুডভিগ মারা যান। নিবন্ধটি তাকে ভাবিয়ে তোলে এবং খুব সহজেই বুঝতে পারেন যে ইতিহাসে তিনি কীভাবে স্মরণীয় হতে চান, যা তাকে তার উইলটি পরিবর্তন করতে অনুপ্রাণিত করে। ১০ ডিসেম্বর ১৮৯৬ সালে নোবেল তার নিজ গ্রাম স্যান রিমোয় (ইতালি) মারা যান। সেই সময় তার বয়স হয়েছিল ৬৩ বছর।

শেষ উইল : নোবেল তার জীবদ্দশায় অনেকগুলো উইল লিখে গিয়েছিলেন। শেষটা লেখা হয়েছিল তার মৃত্যুর মাত্র এক বছর আগে ২৭ নভেম্বর ১৮৯৫ সালে প্যারিসে অবস্থিত সুইডিশ-নরওয়ে ক্লাবে। বিস্ময় ছড়িয়ে দিতে নোবেল তার সর্বশেষ উইলে উল্লেখ করেন, তার সব সম্পদ পুরস্কার আকারে দেয়া হবে যারা পদার্থ, রসায়ন, চিকিৎসা, শান্তি ও সাহিত্যে বৃহত্তর মানবতার স্বার্থে কাজ করবেন। নোবেল তার মোট সম্পদের (৩১ মিলিয়ন সুইডিশ ক্রোনা) ৯৪ শতাংশ এ পাঁচটি পুরস্কারের জন্য উইল করেন। ১৮৯৭ সালে নোবেলের উইল অনুমোদন হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে নোবেল পুরস্কার প্রদানের জন্য নরওয়েজীয় নোবেল কমিটি নামক একটি সংস্থা তৈরি করা হয়।

চিকিৎসা বিজ্ঞানের নোবেল (১৯০১-২০১৮)

১০৯ বার চিকিৎসা বিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার দেয়া হয়েছে।

৯ বার পুরস্কার দেয়া হয়নি : ১৯১৫-১৮, ১৯২১, ১৯২৫, ১৯৪০-৪২

২১৬ জন এ পর্যন্ত চিকিৎসা বিজ্ঞানে নোবেল পেয়েছেন।

৩৯ জন নোবেল জিতেছেন স্বতন্ত্রভাবে।

৩৩ বার নোবেল দেয়া হয়েছে দু’জনকে।

৩৭ বার নোবেল দেয়া হয়েছে তিনজনকে।

১২ জন নারী চিকিৎসা বিজ্ঞানে নোবেল পেয়েছেন।

৩২ বছর বয়সী ফ্রেডরিক জি বান্টিং সর্বকনিষ্ঠ নোবেলজয়ী। ইনসুলিন আবিষ্কারের জন্য ১৯২৩ সালে তিনি নোবেল পান।

৮৭ বছর বয়সী পেইটন রউস বয়োজ্যেষ্ঠ নোবেলজয়ী। টিউমার ইন্ডিউসিং ভাইরাস আবিষ্কারের জন্য ১৯৬৬ সালে তিনি নোবেল পান।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Comments

comments