নিত্য ব্যবহারের জিনিসেই বসে আছে বিপদ!

নিত্য ব্যবহারের জিনিসেই বসে আছে বিপদ!

রান্না ঘর হোক কিংবা খাওয়ার ঘর, প্রতিদিন তো পরিষ্কার করছেন। কিন্তু, তার মধ্যেই কখন ওইসব জিনিসের মধ্যে ব্যাকটেরিয়া প্রবেশ করছে, তা বুঝতে পারছেনা। আর মারাত্বক সব ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণে মাঝে মধ্যেই অসুস্থ হয়ে পড়ছেন আপনি বা পরিবারের অন্য কেউ। কিন্তু, বুঝতেও পারছেন না, কীসের জেরে এভাবে প্রতিদিন শরীরের খারাপ হচ্ছে আপনার পরিবারের কারো না কারোর।

সম্প্রতি বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গিয়েছে, প্রতিদিন যে সমস্ত জিনিসগুলো আপনি ব্যবহার করছেন, তার মধ্যে এমন কিছু রয়েছে, যা থেকে রোগব্যাধি ছড়াচ্ছে হু হু করে।

বাসন মাজার স্পঞ্জ: বাড়ির বাসনপত্র পরিষ্কারের জন্য যে স্পঞ্জ ব্যবহার করেন, তার মধ্যেই অনেক সময় ব্যাকটেরিয়া বাসা বেঁধে থাকে। গবেষণায় জানা যাচ্ছে, ওই স্পঞ্জের মধ্যে প্রতি ২০ মিনিট অন্তর বাসা বাঁধে ব্যাকটেরিয়া।

নন স্টিক কুকঅয়্যার: ১৯৬০ সালে যখন প্রথম নন স্টিক কুকঅয়্যার বাজারে আসে, তখন থেকেই বিপুল জনপ্রিয়তা পায়। কিন্তু, ননস্টিক কুকওয়ারের ওপর যে প্রলেপ রয়েছে তা বেশ ক্ষতিকর বলেই জানা যাচ্ছে। যা থেকে ক্যান্সারও হতে পারে বলে গবেষকদের একাংশ মনে করছে। শুধু তাই নয়, নন স্টিক কুকঅয়্যারে রান্নার সময় কম বা মাঝারি আঁচে রান্না করুন। বেশি আঁচে রান্না করলে, সেখান থেকে বিভিন্ন সমস্যা হতে পারে বলেও জানা যাচ্ছে।

এয়ার ফ্রেসনার: অতিথি আসবে বা ঘরে সুগন্ধের প্রয়োজন। প্রায় সময়ই এয়ার ফ্রেসনার ব্যবহার করা হয়। কিন্তু, শ্বাসকষ্টের জন্য এই এয়ার ফ্রেসনার অনেকাংশ দায়ী বলেও জানা যাচ্ছে।

রাসায়নিক কীটনাশক: পোকা, মাকড় মারার জন্য রাসায়নিক কীটনাশক ব্যবহার করছেন? এতে কিন্তু মারাত্বক ক্ষতি হচ্ছে আপনার শরীরে। পোকার হাত থেকে গাছ রক্ষা করতে যে কীটনাশক ব্যবহার করছেন, তা থেকে কিডনির সমস্যা হতে পারে বলেও জানা যাচ্ছে। পাশাপাশি আরশোলা মারার জন্য যে কীটনাশক ব্যবহার করা হয়, তা থেকে ত্বকের ক্ষতি হয় বলেও জানা যাচ্ছে।

সূত্র: জেডএন

Sharing is caring!

Comments

comments

2 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *