ছেলেরা সম্পর্কে জড়াতে চায় না যেসব কারণে

একা থাকার নাকি আলাদা এক আনন্দ রয়েছে— এমন কথা বলেন অনেকেই। কারণ, একা থাকলে কারোকে জমাখরচ দিতে হয় না, নিজের ইচ্ছে মতো যখন যা খুশি করা যায়।

অন্য দিকে, একা থাকার অসুবিধাও রয়েছে অনেক। হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে বা কোনও অসুবিধায় পড়লে তৎক্ষণাৎ কেউ পাশে দাঁড়ানোর থাকে না।

কথায় বলে, যে কোনও জিনিসেরই দুটো দিক থাকে। তা সত্ত্বেও বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ছেলেরা একা থাকতে পছন্দ করে। এবং, একা থাকার কারণগুলি এক এক জনের ক্ষেত্রে বেশ আলাদা। এমনই তথ্য প্রকাশ করেছেন মেনেলাউস অ্যাপস্তোলউ নামে এক অধ্যাপক। সাইপ্রেসের নিকোসিয়া ইউনিভারসিটির ‘সোশ্যাল সায়েন্স অ্যান্ড ল’ বিভাগের তরফ থেকেই এক সমীক্ষা চালান হয় এই মর্মে।

সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের এক প্রতিবেদন থেকে জানা গিয়েছে যে, নিকোসিয়া ইউনিভারসিটির তরফ থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রশ্ন করা হয়েছিল ‘গাইজ, হোয়াই আর ইউ সিঙ্গল?’ ২০ হাজারেরও বেশি উত্তর আসে এই প্রশ্নের। গবেষকরা সেই উত্তরগুলি ৪৩টি বিভাগে ভাগ করেন। এবং তা পরবর্তীকালে প্রকাশিত হয় ‘ইভলিউশনারি সাইকোলজিকাল সায়েন্স’ জার্নালে।

সমীক্ষা থেকে জানা গিয়েছে, যে মোট ছ’টি কারণে ছেলেরা একা থাকতে চান—

১। ৬৬০ জনেরও বেশি অংশগ্রহণকারীর উত্তর ছিল— তাঁরা দেখতে ভাল নয় বলে একা থাকতে চান।

২। দ্বিতীয় কারণ হল কনফিডেন্সের অভাব।

৩। অনেকে বলেছেন, সম্পর্ক এগিয়ে নিয়ে যেতে তাঁরা খুব বেশি ‘এফর্ট’ দিতে চান না।

৪। অনেকে তো আবার এমন কথাও বলেছেন যে, সম্পর্ক গড়তে তাঁদের কোনও রকম ইচ্ছেই নেই।

৫। অনেকে তাদের ভেঙে যাওয়া সম্পর্ককে কারণ হিসেবে দেখিয়েছেন। এবং তাঁরা যে মহিলাদের আর বিশ্বাস করতে পারেন না, সেটাও বলেছেন।

৬। সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ কারণ, অনেক পুরুষই নাকি ‘ফ্লার্ট’ করতে পারেন না। তাঁরা ইন্ট্রোভার্ট ও লাজুক হওয়ার ফলে মেয়েদের সঙ্গে কথা বলতে পারেন না। তাই তাঁরা একা থাকতেই পছন্দ করেন।

তথ্যসূত্র: এবেলা.ইন

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Comments

comments