বিনোদন 

ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে অভিনয় করতে আপত্তি নেই : শাহানা

মনে আছে শাহানা গোস্বামীকে? আরে শাহানা বলিউড অভিনেত্রী। তবে আমাদের মনে রাখার কারণ হলো এই শাহানা বাংলাদেশের আলোচিত ছবি রুবাইয়াত হোসেনের’আন্ডার কনস্ট্রাকশন’ এ অভিনয় করেছেন। মন্ট্রিয়াল বিশ্ব চলচ্চিত্র উৎসব, স্টকহোম চলচ্চিত্র উৎসবসহ আন্তর্জাতিক বেশ কয়েকটি উৎসব মাতিয়েছিল ছবিটি। এর আগে অবশ্য বাংলাদেশের মেহেরজান ছবিতেও অভিনয় করেছিলেন তিনি। তবে বলিউড অভিনেত্রী আলোচনায় এলেন ভিন্নভাবে।

ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে অভিনয়ের অভিজ্ঞতা নিয়ে খুব একটা কথা বলতে শোনা যায় না নায়ক নায়িকাদের। ছবির প্রয়োজনে অনেকে করেন ঠিকই। ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে অস্বস্তি হয় কী হয় না সে নিয়ে খুব একটা মুখ খোলেন না অভিনেত্রীরা। তবে ব্যতিক্রম তু হ্যায় মেরা সানডে ছবির অভিনেত্রী শাহানা গোস্বামী। বললেন, ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে অভিনয়ে তাঁর অসুবিধা হয় না।

বলিউডে শাহানা যে খুব পরিচিত মুখ তা বলা যাবে না।

রক অন, রু বু রু ও হিরোইনের মতো ছবিতে অভিনয় করেছেন। তবে প্রচারের আলোয় সে অর্থে আসেননি। রু বু রু ছবিতে তাঁর বোল্ড দৃশ্যে অভিনয় আলোচনার বিষয় হয়ে উঠেছিল। তা নিয়েই প্রশ্ন করা হয়েছিল অভিনেত্রীকে। উত্তরে শাহানা বলেন, আমি অনেকবার চুম্বনের দৃশ্যে অভিনয় করেছি। রু বু রু ছাড়াও একাধিকবার অন্তরঙ্গ দৃশ্যে কাজ করেছি। তবে কোনওদিন আপত্তি করিনি। হয়তো ছবিতে কান্নার দৃশ্য রয়েছে। যদি মনে হয় সেটি না হলেও চলবে তাহলে পরিচালকের সঙ্গে তর্ক করা যেতে পারে। আলোচনা করা যেতে পারে। এর বেশি কিছু না।
ঘনিষ্ঠ দৃশ্যের অভিনয়ে আপত্তি না থাকলেও তাঁরও যে কিছু শর্ত থাকে সেটাও পরিষ্কার করে দিয়েছেন শাহানা। তাঁর কথায়, বোল্ড দৃশ্য বা চুমুর দৃশ্য তো স্বাভাবিক বিষয়। তবে পরিচালক বা যাঁর সঙ্গে কাজটা করছি তাঁর সঙ্গে বোঝাপড়া থাকতে হয়। মিলেমিশে ঠিক হয়ে যায়। আর সবথেকে বড়ো কথা হল অভিনেত্রী হিসেবে এটাই তো আমার কাজ। নিজের কাজটাই ঠিক মতো করে যাওয়া উচিত।

২০০৬ সালে বলিউডে অভিষেক করেন শাহানা। এরপর অভিনয় চালিয়ে যাচ্ছেন। এর মাঝেই বাংলাদেশের দুই ছবিতে অভিনয় করেন।

Sharing is caring!

Comments

comments

Related posts

Leave a Comment