ওয়াইফাই বন্ধ করায় স্ত্রীকে পিটিয়ে হাসপাতালে!

রাত গড়িয়ে মধ্যরাত। ইন্টারনেটে বুঁদ স্বামী। স্বামীর এই কাণ্ড দেখে রীতিমতো বিরক্ত স্ত্রী। প্রথম দিকে কিছু না বললেও রাত পেরিয়ে যাচ্ছে দেখে স্বামীকে না বলেই ওয়াইফাই কানেকশন বন্ধ করে দেন তিনি।

আর এরপর ইন্টারনেট আসক্ত স্বামী যা ঘটিয়েছেন তা স্ত্রীর কল্পনাকে ছাড়িয়ে গেছে। বেধড়ক মারধর করে স্ত্রীকে রীতিমতো হাসপাতালে পাঠিয়েছেন তিনি।

ভারতের হায়দরাবাদের সোমাজিগুড়া এলাকায় এমন ঘটনা ঘটেছে। খবর: আনন্দবাজার।

জানা গেছে, রাত পেরিয়ে যেতে দেখে ওয়াইফাই কানেকশন বিচ্ছিন্ন করে দেন স্ত্রী রেশমা সুলতানা। এতে বেশ বিরক্ত হন ইন্টারনেট নেশাগ্রস্ত স্বামী ওমর পাশা।

যখন বুঝতে পারলেন স্ত্রীই নেট কানেকশন বন্ধ করেছেন, তখন হিতাহিত জ্ঞানশূন্য আচরণ শুরু করেন স্বামী। কেন ওয়াইফাই কানেকশন বন্ধ করা হলো বলেই স্ত্রী রেশমাকে কিল, ঘুষি ও লাথি মারতে থাকেন পাশা।

পাঞ্জাগুট্টা থানায় পুলিশের কাছে অভিযোগে রেশমা বলেন, মাথায়, বুকে, মুখে বীভত্স কায়দায় মেরেছেন স্বামী। পরে তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পাঞ্জাগুট্টা থানার পরিদর্শক এস রবীন্দ্র জানান, এটা একটা দাম্পত্য সম্পর্কিত মামলা। রেশমা ও পাশার আত্মীয়রা বিষয়টি মেটানোর চেষ্টা করছেন। সুরাহা না হলে মহিলা থানায় মামলাটি পাঠানো হবে কাউন্সেলিংয়ের জন্য। তার পর পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

রেশমা ও পাশার বিয়ে হয় ছয় বছর আগে। এই দম্পতির তিন সন্তানও আছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *